Arabic Arabic Bengali Bengali English English
কালিগঞ্জে প্রতিবন্ধী স্বামীর নাক কেটে দিল স্ত্রী
কালিগঞ্জে প্রতিবন্ধী স্বামীর নাক কেটে দিল স্ত্রী

কালিগঞ্জে প্রতিবন্ধী স্বামীর নাক কেটে দিল স্ত্রী

মোঃশাহীন আলম লালমনিরহাট প্রতিনিধিঃ

লালমনিরহাটের
কালীগঞ্জে প্রতিবন্ধী স্বামী মঞ্জু মিয়া (৪৫) কে ছুরি দিয়ে নাক বরাবর কুপিয়ে গুরুতর জখম করেছে স্ত্রী আনজু বেগম(৩৮)। শুক্রবার (৩০ জুলাই) রাতে উপজেলার মদাতী ইউনিয়নের তালুক শাখাতী ভিতরকুটি গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। প্রতিবন্ধী মঞ্জু মিয়া (স্বামী) গুরুতর আহত অবস্থায় কালীগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। থানার এজাহারসূত্রে জানা গেছে, ১৮ বছর পুর্বে একই উপজেলার দলগ্রাম ইউনিয়নের উত্তর দলগ্রাম গ্রামের বড়দিঘীরপাড় এলাকার আবুল কালামের মেয়ে আনজু বেগমের সহিত তালুক শাখাতী এলাকার নজরুল ইসলামের প্রতিবন্ধী ছেলে মঞ্জু মিয়ার সাথে বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হয়। বিয়ের পর ভালই চলছিল তাদের সংসার। বিয়ের কিছুদিন পর স্ত্রীর চালচলনে স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে প্রায় সময় ঝগড়াবিবাদ লেগেই থাকত। শুক্রবার স্বামী বাজার করে বাড়িতে এসে বিছানার চাদর এলোমেলো দেখতে পায়। স্ত্রী আনজু বেগমের নিকট বিছানা এলোমেলো হওয়ার কারন জানতে চাওয়ায় দু’জনের মাঝে তর্কবিতর্ক হয়। এরই একপর্যায় স্ত্রী আনজু বেগম স্বামী মঞ্জু মিয়াকে হত্যার উদ্দেশ্যে ধারালো ছুরি দিয়ে নাক বরাবর কোপ মারে। স্ত্রীর কোপে চিৎকার দিয়ে গুরুতর আহত হয়ে মাটিতে পড়ে যান স্বামী মঞ্জু মিয়া। তার চিৎকার শুনে আশপাশের লোকজন ছুটে এলে পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করেন স্ত্রী আনজু বেগম। পরে স্থানীয়রা মঞ্জু মিয়ার স্ত্রীকে আটক করে কালীগঞ্জ থানায় খবর দেন। পুলিশ এসে আহত মঞ্জু মিয়াকে হাসপাতালে পাঠিয়ে দেন এবং তার স্ত্রী আনজু বেগম কে গ্রেফতার করে থানায় নিয়ে যান পুলিশ।এ ঘটনায় মঞ্জু মিয়ার ছোট ভাই সহিদুল ইসলাম বাদী হয়ে কালীগঞ্জ থানায় একটি মামলা দায়ের করেন।
কালীগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আরজু মোঃ সাজ্জাদ হোসেন ঘটনার সতত্যা নিশ্চিত করে জানান, এ ঘটনায় আহত মঞ্জু মিয়ার ছোট ভাই বাদী হয়ে একটি মামলা দায়ের করেছেন। আসামীকে আনজু বেগমকে শনিবার লালমনিরহাট জেল হাজতে পাঠানো হয়েছে।


Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: আপনি নিউজ চুরি করার চেষ্টা করছেন। বিশেষ প্রয়োজনে যোগাযোগ করুন ০১৭৬৭৪৪৪৩৩৩
%d bloggers like this: